50781

জেরুসালেম-রিয়াদের মধ্যে স্বাভাবিককরণ চুক্তির মধ্যস্থতায় সৌদি বাইডেনের সহযোগী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেক সুলিভানকে সৌদি শহর ধাহরানে স্বাগত জানিয়েছেন। সৌদি রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা জানিয়েছে।

রোববার ইসরাইলভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্যা টাইমস অফ ইসরাইলের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ads

প্রতিবেদনে বলা হয়, সৌদি আরব সফর শেষে সুলিভানের ইসরাইলে যাওয়ার কথা রয়েছে।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, এক সিনিয়র মার্কিন কর্মকর্তা টাইমস অফ ইসরাইলকে বলেছেন যে- জেক সুলিভান ও ক্রাউন প্রিন্স জেরুসালেম এবং রিয়াদের মধ্যে একটি স্বাভাবিককরণ চুক্তির মধ্যস্থতার জন্য দীর্ঘস্থায়ী মার্কিন প্রচেষ্টা নিয়ে আলোচনা করবেন।

ads

ওই মার্কিন কর্মকর্তা আরো বলেছেন, সুলিভান ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সাথে দেখা করে রিয়াদে তার আলোচনার বিষয়ে আপডেট জানাবেন এবং রাফাতে ইসরাইলের পরিকল্পিত সামরিক অভিযান নিয়েও আলোচনা করতে দেখা করবেন।

এদিকে ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের জন্য জাতিসঙ্ঘ দফতরের (ইউএনআরডব্লিউএ) প্রধান শনিবার জানিয়েছেন যে- দু’ সপ্তাহ আগে ইসরাইলের সামরিক বাহিনী গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফায় স্থল আক্রমণ শুরুর পর আনুমানিক আট লাখ লোক ওই স্থান থেকে সরে যেতে বাধ্য হয়েছে।

ইউএনআরডব্লিউএ’র প্রধান ফিলিপে লাজারিনি সামাজিক মাধ্যম এক্সে লিখেছেন যে আগেই বাস্তুচ্যূত অসামরিক লোকজন রাফা ত্যাগ করছেন এবং ‘ভাঙা ভবনগুলোসহ মধ্যবর্তী এলাকা ও খান ইউনিসের দিকে’ চলে যাচ্ছেন।

ইসরাইলের ঘনিষ্ঠতম মিত্র যুক্তরাষ্ট্র রাফায় সামরিক অভিযান সম্প্রসারিত করার বিরুদ্ধে আপত্তি জানিয়েছে। এই অভিযান শুরুর আগে থেকেই সেখানে ১৪ লাখ বেসামরিক ফিলিস্তিনি আশ্রয় নিয়ে আছে।

উল্লেখ্য, ফিলিস্তিনি সংগঠন হামাস গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরাইলে আকস্মিক বড়ো ধরনের হামলা চালায়। এ সময়ে তারা প্রায় এক হাজার ১৭০ ইসরাইলিকে হত্যা এবং ২৫০ জনকে বন্দী করে। এখনো হামাসের কাছে ১২৮ জন বন্দী হিসেবে আটক রয়েছে।

এদিকে ৭ অক্টোবর ইসরাইল গাজায় প্রতিশোধমূলক পাল্টা হামলা শুরু করে যা এখনো চলছে। গাজায় ইসরাইলের অব্যাহত এ হামলায় ৩৫ হাজার ৩৮৬ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। এদের অধিকাংশ নারী ও শিশু। আহত হয়েছে আরো ৭৯ হাজার ২৬১ ফিলিস্তিনি।
সূত্র : টাইমস অফ ইসরাইল

ad

পাঠকের মতামত