47895

ভারতের প্রথম নারী বিচারপতি ফাতিমা বিবির ইন্তেকাল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ৯৬ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন ভারতের প্রথম নারী বিচারপতি এম. ফাতিমা বিবি। বৃহস্পতিবার (২৩ নভেম্বর) কেরালা রাজ্যের কোল্লাম জেলায় ট্রাভাঙ্কোর মেডিকেল হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

কেরালার স্বাস্থ্যমন্ত্রী বীনা জর্জ এ তথ্য নিশ্চিত করেন। শোক প্রকাশ করে তিনি বলেছেন, বিচারপতি এম. ফাতিমা বিবির মৃত্যু আমাদের বেদনা দিচ্ছে।

ads

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবরে বলা হয়, দীর্ঘদিন ধরে বয়সজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন বিচারপতি এম. ফাতিমা বিবি। তার মরদেহ পাঠানমথিট্টায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানেই তার দাফন হবে।

১৯২৭ সালে পাথানামথিট্টা জেলায় জন্মগ্রহণ করা ফাতিমা বিবির নাম ভারতের বিচার বিভাগীয় ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা রয়েছে।

ads

বিচারপতি পদ থেকে অবসর নেওয়ার পর তিনি তামিলনাড়ুর রাজ্যপাল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

বিচারপতি ফাতিমার শিক্ষাগত যাত্রা শুরু হয় সেন্ট জোসেফ কনভেন্ট স্কুলে। কেরালা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়নে বিএসসি ডিগ্রি অর্জনের পর তিনি তিরুবনন্তপুরমের সরকারি আইন কলেজে এ বিষয়ে পড়াশোনা করেন।

১৯৫০ সালে তিনি কেরালার প্রথম নারী হিসেবে গৌরবময় আইন ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৮৩ সালে কেরালা হাইকোর্টের বিচারক হিসাবে বেঞ্চে উন্নীত হন তিনি। এর আগে প্রধান বিচার বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট ও আয়কর আপিল ট্রাইব্যুনালের বিচার বিভাগীয় সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৯ সালে তিনি ভারতের সুপ্রিম কোর্টের প্রথম নারী বিচারপতি হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেন।

বিচারপতি ফাতিমা বিবি লিঙ্গ বাধা ভেঙে দিয়েছিলেন। ভারতের উচ্চ বিচার বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ পদে আরোহণকারী মুসলিম নারী হিসেবে প্রতিভাত হন।

১৯৯২ সালে সুপ্রিম কোর্ট থেকে অবসর নেন তিনি। ১৯৯৭ তামিলনাড়ুর গভর্নর হিসেবে নিযুক্ত হন। গভর্নরের পদে অধিষ্ঠিত প্রথম মুসলিম নারীও তিনি। তিনি কেরালা অনগ্রসর শ্রেণি কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছিলেন। জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

ad

পাঠকের মতামত